Skip to main content

Posts

Showing posts from September, 2023

Five Pillars of Islam

Five Pillars of Islam  The profession of Faith (Shahadah)  Prayer (Salah) Alms (Zakat) Fasting (Sawm) Pilgrimage (Hajj) What are The  Five Pillars of Islam Explained 5 pillars of Islam in English? 5 Pillars of Islam  Prophet Muhammad Sallallahu Alayhi Wa Sallam came to teach us many things and the most important of them are the five pillars of Islam do you know the five pillars let's say them together with number one a Shahada to say  ASH-HADU ANNA LA ILAHA ILLA ALLAHU WA ASH-HADU ANNA MUHAMMADAN ABDUHU WA RASULUHU which means there is no one worthy of worship except Allah and that Muhammad Sallallahu Alayhi Wa Sallam is his final messenger number two is salat the prayer the five daily prayers number three zakat to give the yearly charity number four ECM fast in the month of Ramadan and number five is Hajj going to Mecca and performing the pilgrimage Salah will be the first pillar that Allah will ask us about on the day of judgment so it is very important to pray on time and concen

ইসলামে, কালিমা

ইসলামে, কালিমা বা ইসলামী শব্দে একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো "কালিমা"। কালিমা হলো একটি সাংকেতিক বা ধার্মিক বিশ্বাস, যা একটি ধর্মীয় সাক্ষরতা সাথে আসে এবং এটি ইসলামের মূল ধর্মীয় সূচনা দেয়। ইসলামে প্রধানত দুটি কালিমা বা ধার্মিক ঘোষণা প্রণালি রয়েছে, এবং এই দুটি কালিমার মূল বাংলা অনুবাদ হলো: শহাদাতান (দুই সাক্ষরিক কালিমা): লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু: এই কালিমা অনুসরণ করে, মুসলিম একক আল্লাহের প্রতি বিশ্বাস এবং তাকে কোনো পর্যায়ে সমাপনী প্রতিষ্ঠান ছাড়াই অমান্য ঘোষণা দেয়। মুহাম্মদুর রাসুলুল্লাহ: এই অংশে, মুসলিম মুহাম্মদ (সা:) কে আল্লাহের সর্বশ্রেষ্ঠ প্রেরণা দেওয়া হলো এবং তাকে ইসলামের প্রতিষ্ঠাতা এবং সাক্ষরিক দূত হিসেবে মান্য করা হয়। তাওহীদ (ত্রৈতীয় সাক্ষরিক কালিমা): سُبْحَانَ اللّهِ وَبِحَمْدِهِ سُبْحَانَ اللّهِ الْعَظِيمِ: এই অংশে, মুসলিম আল্লাহকে পূর্ণভাবে একক এবং সর্বাধিক মহান মান্য করে। এই ঘোষণা আল্লাহের মহানত্ব, পূর্ণতা, এবং প্রশংসা করার একটি উপায় হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এই দুটি কালিমা ইসলামের মূল ধার্মিক ঘোষণা এবং এগুলি মুসলিম আইমান এবং বিশ্বাসের সূচনা দেয়। এই কালিম

মাক্কী জীবনের স্তর কয়টি

নবী মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর মাক্কী জীবনের স্তর এটি কিছুটা সুবিধানুযায়ী বিভাজিত করা যেতে পারে, তবে প্রাথমিক উপভোগের স্তরে নৌকার চালনা, পশুপালন, এবং বাণিজ্যিক কাজের মধ্যে সম্মিলিত হত। এই সময়ে তিনি নিজের পরিবারের সাথে বসত এবং সাধারণ মানুষের জীবন প্রণালী অনুসরণ করতেন। এই স্তরের জীবনের সময়কাল তার নবী হওয়ার পর কিছু সাল পর্যন্ত চলে। তারপরে, ইসলামী নবী হিসেবে নির্ধারিত হওয়ার পর, তার জীবনে পরিবর্তন আসে এবং তিনি ইসলাম প্রচার করতে শুরু করেন। এই সময়ে তিনি দাওয়াত দিতে থাকেন এবং আপনার অনুসরণকারীদের সাথে ইসলাম সম্পর্কে শিক্ষা দেন। তার আদর্শমূলক জীবন এবং দাওয়াত দেওয়ার মাধ্যমে তিনি ইসলামের প্রচার এবং প্রসার করতে শুরু করেন। এই স্তরের জীবনের সময়কাল সম্প্রতি নবী মুহাম্মদের (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) মৃত্যু এবং মদীনায় যাত্রা শুরু করার আগের সময়কাল সম্পর্কে বলা হতে পারে। সম্পূর্ণ নবী মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর মাক্কী জীবনের স্তরের সময়কাল দ্বিতীয় স্তরের সময় হিসেবে পরিগণিত হয়, যা তার নবী হওয়ার পর এবং ইসলামের প্রচার শুরু হওয়ার পরে শুরু হ

99 Names of Allah

The term "Isme Azam" typically refers to a special or powerful name of Allah (God) in Islamic tradition. There is no specific "Isme Azam" mentioned in the Quran or Hadith, but some scholars and individuals believe that certain combinations of Allah's names, when invoked through prayer (dua), can be particularly effective or powerful. One commonly mentioned practice is the recitation of the 99 Names of Allah (Asma ul Husna), where each name represents one of Allah's attributes. This recitation is considered a form of dhikr (remembrance) and supplication. You can recite these names in Arabic by saying: الله (Allah) الرحمن (Ar-Rahman) الرحيم (Ar-Raheem) الملك (Al-Malik) القدوس (Al-Quddus) السلام (As-Salaam) المؤمن (Al-Mu'min) المهيمن (Al-Muhaymin) العزيز (Al-Aziz) الجبار (Al-Jabbar) المتكبر (Al-Mutakabbir) الخالق (Al-Khaliq) البارئ (Al-Bari) المصور (As-Samee) السميع (Al-Basir) الحكيم (Al-Hakim) الودود (Al-Wadood) المجيد (Al-Majeed) الباعث (Al-Ba

Ism-e-Azam Dua

Ism-e-Azam Dua The Ism-e-Azam, also known as the "Most Powerful Name of Allah," is a concept in Islamic tradition that refers to a specific name or attribute of Allah (God) believed to hold special significance and power when used in supplication (dua). However, it's important to note that there is no universally agreed-upon Ism-e-Azam, and different scholars and traditions may highlight different names or attributes of Allah as the most powerful. Some common names and attributes of Allah that are often referred to as Ism-e-Azam include: Allah (الله): The most commonly used name for God in Islam. Ar-Rahman (الرحمن): The Most Gracious. Ar-Raheem (الرحيم): The Most Merciful. Al-Quddus (القدوس): The Most Holy. Al-Jabbar (الجبار): The Compeller or Restorer. Al-Qahhar (القهار): The Subduer. Using any of these names or attributes in your supplication (dua) is believed to be powerful, as Muslim

Trending

৬ কালেমা বাংলা উচ্চারণ ও বাংলা অর্থ সহ | 6 Kalima in Bangla ortho o Uccharan Shoho

৬ কালেমা বাংলা উচ্চারণ  6 Kalima কালিমা সমূহ  ৬ কলিমা আরবী ও বাংলা উচ্চারণ ও অর্থ সহ এবং ঈমান-ই মুজমাল  ঈমান-ই মুজমাল সহ চলুন জেনে নেই  ৬ কালেমা বাংলা উচ্চারণ সহ ইসলামিক সব গরুত্ব পর্ণ দুআ ও আমল সমূহ, এবং নবীদের জীবনী, ইসলামিক যুদ্ধের কাহিনী, জানতে আমাদের আপ্প  ডাউনলোড করুন Download App Now কালেমা কয়টি ও কি কি  কালিমা ৬ টি   (1) কালেমা-ই তাইয়্যেবা   (2). কালেমা-ই শাহাদৎ  (3)  কালেমা-ই তাওহীদ  (4.) কালেমা-ই রদ্দেকুফর  (5). কালিমা-ই তামজীদ  (6.) কালিমা আস্তাগফার ৬ কালেমা বাংলা উচ্চারণ 6 kalima in bangla 1. কালেমা-ই তাইয়্যেবা   بِسْمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحْمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ  لَا اِلَهَ اِلاَّ اللهُ مُحَمَّدُ رَّسُوْ لُ الله  বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।  কালিমা তায়্যিবা বাংলা উচ্চারণ  Kalima Tayyiba Bangla লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ । কালিমা তায়্যিবা অর্থ  আল্লাহ ব্যাতিত/ ছাড়া কোন মাবুদ (এলাহ) নেই। হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) আল্লাহর প্রেরিত রাসূল।  2. কালেমা-ই শাহাদৎ কালেমা শাহাদাত আরবি  بِسْمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحْمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ   اَشْهَدُ اَنْ لَّا اِلَهَ اِلَّا اللهُ وَحْدَهُ لَ

মহানবীর জন্ম ও মৃত্যু তারিখ, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) - এর জন্ম ও বংশ পরিচয়

মহানবীর হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর জন্ম ও মৃত্যু তারিখ, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)  এর জন্ম ও বংশ পরিচয়  সম্বন্ধে বিস্তারিত ভাবে জানুন,  মুহাম্মাদ (সাঃ) ওনার উপর শান্তি বর্ষিত হোক মহানবীর জন্ম ও মৃত্যু তারিখ, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) - এর জন্ম ও বংশ পরিচয় মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) - এর জন্ম ও বংশ পরিচয় ★★★ নবী জীবনকে আমরা প্রধান দু’টি ভাগে ভাগ করে নেব- মাক্কী জীবন ও মাদানী জীবন। মক্কায় তাঁর জন্ম, বৃদ্ধি ও নবুআত লাভ এবং মদীনায় তাঁর হিজরত, ইসলামের বাস্তবায়ন ও ওফাত লাভ। অতঃপর প্রথমেই তাঁর বংশ পরিচয় ও জন্ম বৃত্তান্ত। রাসূলের মাক্কী জীবন: হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বংশ পরিচয়: ইবরাহীম (আঃ)-এর দুই পুত্র ছিলেন ইসমাঈল ও ইসহাক্ব। ইসমাঈলের মা ছিলেন বিবি হাজেরা এবং ইসহাকের মা ছিলেন বিবি সারা। ইবরাহীম (আঃ)-এর কনিষ্ঠ পুত্র ইসহাক (আঃ)-এর বংশধর অর্থাৎ বনু ইস্রাঈল। যাদের সর্বশেষ নবী ছিলেন হযরত ঈসা (আঃ)। অন্যদিকে হযরত ইবরাহীম (আঃ)-এর জ্যেষ্ঠ পুত্র ইসমাঈল (আঃ)-এর বংশে একজন মাত্র নবীর জন্ম হয় এবং তিনিই হলেন সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ নবী হযরত মুহাম্মাদ (ছাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম)। ফলে আদম

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কিসের তৈরি | Nabiji Kisher Toiri

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কিসের তৈরি নবীজি কিসের তৈরী, মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) কিসের তৈরী নূরের নাকি মাটির?, নবী কিসের তৈরি হাদিস, নবী কিসের তৈরি দলিল, চলুন জেনে নিই বিস্তারিত ভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে অনেকের মাথা গরম ও হতেপারে মাথা গরম করবেন্না দয়াকরে আমরা বিস্তারিত ভাবে জানার চেষ্টা করি নবীজি কিসের তৈরী মুহাম্মাদ সা. মাটির মানুষ ছিলেন, নূরের তৈরী ফেরেশতা নন নবীজি কিসের তৈরী চলুন বিস্তারিত জেনেনেই কেবল বিশ্বনবী মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামই নন, বরং কুরআনের বহু আয়াত ও অসংখ্য সহীহ হাদীস দ্বারা সুস্পষ্ট প্রমাণিত যে, মানব জাতির আদি পিতা হযরত আদম আলাইহিস সালাম থেকে সর্বশেষ নবী মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পর্যন্ত সকল নবী-রাসূলই ছিলেন মাটির তৈরী মানুষ। কোনো পয়গম্বরই নূরের তৈরী কিংবা ফেরেশতা ছিলেন না। তাছাড়া আল্লাহ তা’আলা মানুষের কাছে তাদের পথপ্রদর্শক মানুষ নবী পাঠাবেন এটিই স্বাভাবিক। মানুষের কাছে যদি নূরের তৈরি কোনো ফেরেশতাকে নবী হিসাবে প্রেরণ করতেন তাহলে তাঁদের মাধ্যমে পৃথিবীতে দীন প্রতিষ্ঠা করা প্রায় অসম্ভব হয়ে যেতো।  কারণ, যেসব মাখলুক নূরের তৈরী তাদের কোনো আহার নেই, নিদ্

Wikipedia

Search results